শিক্ষাবৃত্তি দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রীঃ ৬০ লাখ থেকে ২ কোটি পর্যন্ত

শিক্ষাবৃত্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২০:  প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ ২০২০-২০২১ ঘোষণা করা হয়েছে, যার আওতায় সরকার থেকে মাস্টার্সের জন্য ৬০ লাখ টাকা ও পিএইচডির জন্য ২ কোটি টাকা দেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ ২০২০-২১ ঘোষণা করা হয়েছে, যার আওতায় সরকার থেকে মাস্টার্সের জন্য ৬০ লাখ টাকা ও পিএইচডির জন্য ২ কোটি টাকা দেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের গভরনেন্স ইনোভেশন ইউনিটের টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে জনপ্রশাসনের দক্ষতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্পের উচ্চতর শিক্ষায় (মাস্টার্স এবং পিএইচডি) ‘প্রধানমন্ত্রী ফেলোশিপ’ প্রদানের লক্ষ্যে বাংলাদেশের নাগরিকদের কাছে থেকে আবেদনপত্র আহ্বান করা হয়েছে।

 

সুযোগ-সুবিধাগুলোঃ

মাস্টার্সের জন্য ৬০ লাখ টাকা ও পিএইচডির জন্য ২ কোটি টাকা দেয়া হবে।

 

আবেদনের যোগ্যতা

  • প্রত্যাশিত ডিগ্রীর জন্য একটি বিশ্ববিদ্যালয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে নিঃশর্ত এডমিশন অফার (পূর্ণকালীন) [Unconditional offer letter (full time)] থাকতে হবে।
  • আবেদনকারীর নিকট আবেদন গ্রহণের শেষ তারিখ পর্যন্ত কার্যকর (valid) TOEFL iBT/IELTS (Academic) স্কোর থাকতে হবে। IELTS (Academic) এর Overall/ সর্বমােট স্কোর হতে হবে ন্যূনতম ৬ (ছয়) ও TOEFL iBT এর Overall/ সর্বমােট স্কোর হতে হবে নূ্যনতম ৮০ (আশি)।
  • বিশ্ববিদ্যালয়/শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর র্যাংকিং The Times Higher Education World University Overall Rankings 2020 অনুযায়ী ১ থেকে ৩০০ এর মধ্যে হতে হবে।

অনলাইন আবেদনের শেষ সময়:

০৫ এপ্রিল ২০২০, বাংলাদেশ স্থানীয় সময় বিকাল ০৫.০০টা। 

বয়সসীমা

  • PhD এর জন্য ৪৫ এবং Masters এর জন্য ৪০ বছর।

যেসব স্থানের প্রার্থীদের জন্য প্রযোজ্য

  • বাংলাদেশি নাগরিক

 আবেদন পদ্ধতি

  • আবেদনকারীকে ফেলােশিপ এর ওয়েবসাইট www.pmfellowship.pmo.gov.bd এ প্রবেশ করে Eligibility  Test এ অংশগ্রহণ করতে হবে। Eligibility Test এ উত্তীর্ণ আবেদনকারী একটি ভেরিফাইড ই-মেইল একাউন্ট ও মােবাইল ফোন নম্বরের মাধ্যমে ফেলােশিপের ওয়েবসাইটে নিজের একটি একাউন্ট খুলতে পারবেন। উক্ত একাউন্টের মাধ্যমে একজন আবেদনকারী তার আবেদন তৈরি এবং জমা প্রদান করতে পারবেন। আবেদন জমা/ সাবমিট করার পূর্ব পর্যন্ত একাধিকবার আবেদন সংশােধন করা যাবে। আবেদন জমা দেয়ার পর আবেদনকারী ই-মেইল ও মােবাইল ফোনের মাধ্যমে নিশ্চয়তাসূচক (Confirmation) বার্তা পাবেন। আবেদনকারীকে আবেদন নম্বরটি ভবিষ্যতের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে। 

 

  • অনলাইনে আবেদনের পর আবেদনের সফট (PDF) কপি আবেদনকারীর নিজের এবং তার নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষের স্বাক্ষর ও সিলসহ অনলাইনে সাবমিট করতে হবে। আবেদনের হার্ডকপিটি প্রয়ােজনীয় ডকুমেন্টসহ “মহাপরিচালক, গভর্নেন্স ইনােভেশন ইউনিট, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, তেজগাঁও-১২১৫, ঢাকা বরাবর প্রেরণ করতে হবে। 

 

  • আবেদন ফরমে Applicant Category নির্বাচনের ক্ষেত্রে বিসিএস কর্মকর্তা ব্যতীত অন্যান্য সকল সরকারী ও | স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে কর্মরত ব্যক্তিবর্গ ‘নন বিসিএস সরকারি (বিসিএস ব্যতীত অন্যান্য) ক্যাটাগরিতে বিবেচিত হবেন। যেমন: সকল সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়/ প্রতিষ্ঠান ইত্যাদি। 

 

  • বেসরকারি ক্যাটাগরির ক্ষেত্রে সরকারি এবং নন বিসিএস সরকারি ক্যাটাগরির নয় এমন সকল প্রার্থী আবেদন করতে পারবেন।

ফেলােশিপ বিজ্ঞপ্তি- ২০২০-২১ ডাউনলোড করুন পিডিএফ ফাইল

ফেলােশিপ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক প্রদেয় অর্থের সর্বমােট পরিমাণ মাস্টার্স কোর্সের ক্ষেত্রে ৬০ (ষাট) লক্ষ টাকা এবং পিএইচডি কোর্সের ক্ষেত্রে ২ (দুই) কোটি টাকার অধিক হবেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *